মিয়ানমারে মানবিক বিপর্যয়ের শিকার রোহিঙ্গা মুসলমানেরা

হে আল্লাহ তুমি মিয়ানমারের মুসলিমদেরকে সাহায্য কর-

মিয়ানমারে মানবিক বিপর্যয়ের শিকার
রোহিঙ্গা মুসলমানেরা

মিয়ানমারে মানবিক
বিপর্যয়ের কবলে পড়েছে রোহিঙ্গরা।
গুলিবিদ্ধরা চিকিৎসাহীন অবস্থায় মৃত্যুপথের
যাত্রী।
কোথাও চিকিৎসা নিতে পারছে না।
অর্ধাহারে অনাহারে দিনাতিপাত করছে।
এদিকে গুলিবিদ্ধ কয়েক…জন মিয়ানমারের
রোহিঙ্গা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করছে। গুলিবিদ্ধ
কয়েকজন হল- মংড়– জামতলী পাড়ার আহমদ
হোছনের পুত্র কালা হোছেন (৬০), নাপিতের ডেইল
এলাকার মকুতল হোছনের পুত্র হাফিজুর রহমান
(২০), বাসুরপাড়া দুদুমিয়া পুত্র ছৈয়দি (৩৫),
কাহারীপাড়া হাফেজ আহমদের পুত্র রিদুয়ান (১৭),
মংডু নয়াপাড়া এলাকার আবু জমিলের পুত্র
মোঃ তৈয়ুব
(১৮)। গুলিবিদ্ধরা বিভিন্ন
হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে।
চিকিৎসা নিতে আসা গুলিবিদ্ধ কালা হোছন(৬০)
জানান- মিয়ানমারে চিকিৎসা নিতে না পারায় মুসলিম
দেশ
হিসেবে বাংলাদেশে চিকিৎসা নিতে এসেছি।
এছাড়া সরকারী বাহিনীর ইন্ধনে রাখাইনদের
অমানুষিক নির্যাতন সইতে না পেরে ১১ জুন
৮টি ট্রলার যোগে প্রায় ৫০৪
রোহিঙ্গা নারী পুরুষ
ও শিশু বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ অপোয় নাফনদী ও
বঙ্গোপসাগরের মোহনায় ভাসছে। কিন্তু বিজিবি ও
কোস্টগার্ডের বাধার
মুখে তারা বাংলাদেশে ঢুকতে পারছে না। সেন্টমার্টিন
দ্বীপের সাবেক মেম্বার নুর মোহাম্মদ জানান- এসব
ট্রলারে গুরুতর অসুস্থ, আহত, গুলিবিদ্ধ,
সন্তানসম্ভাবা মহিলারা আছে।
তাছাড়া অনাহারে জনিত কারনে তাদের অবস্থা ছিল
অত্যান্ত কাহিল। দ্বীপের লোকজন রান্না করা ভাত
ও পিপাসা মিটানোর জন্য পানি দিতে চেয়েছিল।
কিন্তু
বাধার মুখে তা দেয়া সম্ভব হয়নি। ব্যাপক
অনুপ্রবেশের জন্য মিয়ানমারের রোহিঙ্গা মুসলিম
নাফনদীতে নৌকা নিয়ে অবস্থান করতে দেখা যাচ্ছে।
নিরুপায় হয়ে সাগরে ভাসমান অবস্থায় রয়েছে ।
খাদ্য
ও চিকিৎসার অভাবে ভাসমান ট্রলারে ৮জন
মারা যাওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ১১ জুন ভোর
রাতে নাসাকাবাহিনীর
ধাওয়া হয়ে ৪টি রোহিঙ্গা বোঝাই বোট ডুবির
ঘটনাও
ঘটেছে।
প্রত্যদর্শী জেলেরা সাগরে ৫/৬টি লাশ
ভাসতে দেখেছে বলে জানায়। মিয়ানমারের রাখাইন
সম্প্রদায় আরাকান রাজ্যে বসবাসরত রোহিঙ্গাদের
উপর দমন-নিপীড়ন অব্যাহত রেখেছে। আর প্রত্য

পরোভাবে পে রয়েছে সেদেশের সামরিক জান্তা ও
সীমান্ত রী নাসাকা বাহিনী। গত ৮ জুন শুরু
হওয়া দাঙ্গায় কমপে ৩০ জন নিহত ও কয়েকশত
মুসলিম রোহিঙ্গা আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।
বাংলাদেশে রোহিঙ্গা চিরস্থায়ী করে রাখা এবং এ
উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্য আরাকান
রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলিমদের উপর চলছে নতুন
করে এ
চরম নির্যাতন।

3 Responses

  1. হে আল্লাহ তুমি মুসলমানদের একমাত্র রক্ষাকারী। তুমি তাদেরকে রক্ষা কর।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: